পুরুষাঙ্গের ‘মাপ’ নিয়ে মেয়েরা যা ভাবেন

[X]

আদর্শ পেনিস কেমন হওয়া উচিত? সম্প্রতি গবেষকরা খোঁজার চেষ্টা করেছেন নারীর চোখে পুরুষাঙ্গের সঠিক গঠনের সংজ্ঞা।

পুরুষের যৌনাঙ্গের কেমন গড়নকে সঙ্গমের পক্ষে আদর্শ বলা যায়, এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করলেন ‘দ্য জার্নাল অফ সেক্সুয়াল মেডিসিন’ পত্রিকা। দেখা গিয়েছে, পেনিসের স্বাভাবিক গঠন মোটেই যৌনসুখ বৃদ্ধির সহায়ক নয়। যদিও যৌন আকর্ষণ বাড়াতে ইদানীং পাশ্চাত্যের বহু দেশেই অস্ত্রোপচারের সাহায্যে পুরুষাঙ্গের গড়ন বদলে ফেলছেন উত্‍সাহীরা। পেনিসের বিশেষ এই পরিবর্তিত রূপকে চিকিত্‍সার ভাষায় বলা হয় ‘হাইপোস্প্যাডিয়াস’।

গবেষকরা জানিয়েছেন, হাইপোস্প্যাডিয়াস হল এমন অবস্থা যেখানে মূত্রনালীর মুখ পেনিসের শেষ প্রান্তে অবস্থান করে না। এই ছিদ্র থাকে পেনিসের উপরিভাগের (স্ফীত অংশ) নীচে। জানা গিয়েছে, অদ্ভুতদর্শন এমন পুরুষাঙ্গের চাহিদায় নিত্য ভিড় বাড়ছে কসমেটিক সার্জনের ক্লিনিকে।

এই বিষয়ে মোট ১০৫ জন নারীকে নিয়ে সমীক্ষা চালায় গবেষক দল। নারীর নজরে পছন্দসই পুরুষাঙ্গ কেমন হওয়া উচিত, ৮টি বৈশিষ্টের ভিত্তিতে সেই তত্ত্ব তালাশ করা হয়েছে। দৈর্ঘ্য, ব্যাস, অবস্থান ও মূত্রনালীর ছিদ্রের আকৃতির ভিত্তিতে ৫টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে পুরুষের যৌনাঙ্গ। এছাড়া পেনিসের শীর্ষভাগের আকৃতি, ত্বকের প্রকৃতি, অণ্ডকোষের গড়ন, গোপনাঙ্গের রোমের মান এবং সব মিলিয়ে পুরুষের যৌনাঙ্গের বাহ্যিক রূপ সম্পর্কেও মহিলাদের মতামত নেওয়া হয়েছে।

গবেষণায় জানা গিয়েছে, পেনিসের সামগ্রিক রূপেই বেশির ভাগ মহিলা আকৃষ্ট হন। আশ্চর্যের বিষয়, দেখা গিয়েছে পেনিসের দৈর্ঘ্য নিয়ে পুরুষের চিরকেলে মাথাব্যাথা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। বৈশিষ্টের তালিকায় তার স্থান হয়েছে ৬ নম্বরে। পুরুষাঙ্গের ব্যাস ঠাঁই পেয়েছে ৩ নম্বরে, গোপনাঙ্গের রোম ২ নম্বরে জায়গা পেয়েছে। মোদ্দা কথা, কোনও একটি নয়, নানা বৈশিষ্টের যোগফলেই মেলে রুচি মাফিক পেনিস, এমনই মনে করছেন আজকের নারী।

More from my site

Leave a Reply